টি- ১০ লিগের প্রথম শিরোপা জিতলো সাকিবের কেরালা কিংস

টুর্নামেন্টেই এর শুরু থেকে খুব একটা ব্যাটে-বলে সুবিধা করতে পারেননি সাকিব আল হাসান। তবে টি-১০ লিগে চ্যাম্পিয়ন হওয়ার মজাটা পেয়েছেন তিনি।ট্রফিটা ছুঁতে পেরেছেন হাত দিয়ে। টি-টেন ক্রিকেটের প্রথম আসরের শিরোপা জিতেছে তার দল কেরালা কিংস।

শারজাহতে টসে জিতে প্রথমে ফিল্ডিং করার সিদ্ধান্ত নেন কেরেলা কিংসের অধিনায়ক ইয়ন মরগান। বলহাতে প্রথম ওভারে ১০ রান দেন সাকিব। পরের ওভারে গুনেছেন ২১। প্রথম দুই ওভারে ১৯ রানের বিনিময়ে ১ উইকেট নিয়ে ভালোই সূচনা করে কেরেলা। কিন্তু ওপেনার লুক রনকি ও শোয়েব মালিক সেমিফাইনালের মতো ফাইনালেও বড় জুটি গড়ে তোলেন। এই দুই ব্যাটসম্যানের ৮৩ রানের জুটিতে ভর করে নির্ধারিত ১০ ওভারে ১২০ রানের লড়াকু স্কোর পায় পাঞ্জাবী লেজেন্ডস।কেরালার লিয়াম প্লাঙ্কেট ও রায়াদ এমরিট নেন একটি করে উইকেট।

১২১ রানের টার্গেটে ব্যাট করতে নেমে প্রথম বলেই উইকেট হারায় কেরেলা। ফাহিম আশরাফের বলে ক্যাচ দিয়ে ফেরেন ওয়ালটন। তবে দ্বিতীয় উইকেটে ওপেনার পল স্টার্লিংকে সাথে নিয়ে পাঞ্জাবী বোলারদের উপর রীতিমতো তান্ডব চালান কেরেলার অধিনায়ক ইয়ন মরগান।করেছেন ১৪ বলে ৫২ রান। বলতেই হবে যেন মাঠে বইছিল ৬,৪ এর ফুলঝুরি। ইয়ন মরগান করেছেন সব চাইতে দূত অর্ধশত।

ওয়েন মর্গ্যানের ব্যাটিং তাণ্ডবে বড় রান তাড়ায়ও কেরালা জিতে যায় ২ ওভার বাকি রেখেই। ৫ চার ও ৬ ছক্কায় ২১ বলে ৬৩ করেন কেরালা অধিনায়ক মর্গ্যান। ৫ ছক্কায় ২৩ বলে ৫২ রানে অপরাজিত ছিলেন গোটা টুর্নামেন্টেই দুর্দান্ত খেলা পল স্টার্লিং। সাকিবকে নামতে হয়নি ব্যাটিংয়ে।  মাত্র ২১ বলে ৫ টি চার আর ৬ টি ছক্কায় ৬৩ রান করেন কেরেলার অধিনায়ক। শেষ দিকে জয়ের আনুষ্ঠানিকতা সেরেছেন ওপেনার পল স্টার্লিং। ২৩ বলে ৩ চার আর ৫ ছক্কায় ৫২ রান করে অপরাজিত থাকেন এই ক্রিকেটার। আর কেরালা কিংস জয় পায় ৮ উইকেটে।

 

Leave a Reply