যেভাবে বল টেম্পারিং করেছিল অস্ট্রেলিয়ার ব্যানক্রফট

তৃতীয় দিনের খেলা শেষ করে সংবাদ সম্মেলনে ব্যানক্রফট বলেন,‘আমরা বিরতির সময় এটা নিয়ে কথা বলেছিলাম। পিচের সাহায্য নেয়ার জন্য আমি ছোট শিরিষ কাগজ দিয়ে বলের অবস্থা পরিবর্তন করার চেষ্টা করছিলাম কিন্তু সেটা কাজ করেনি তাই আম্পায়াররা আর বল পরিবর্তন করেন নি। আমাকে স্ক্রিনে দেখানোয় আমি কাগজটি আমার ট্রাউজারের ভেতর রেখে দেই।’

 

bancroft

অধিনায়ক স্মিথ ব্যানক্রফট এর কথার সূত্র ধরে বলেন, ‘নেতৃত্বস্থানীয়রা এ বিষয় নিয়ে জানত। আমরা মধ্যাহ্ন বিরতিতে এ নিয়ে কথা বলি। এটা আসলে খেলার স্পিরিটের বাইরে। এটার জন্য আমার সততা, আমার দলের সততা ও আমার নেতৃত্বস্থানীয়দের সততা প্রশ্নবিদ্ধ হয়েছে। আশা করি ভবিষ্যতে এমন আর হবে না।’এটা খুবই অসম্মানজনক এবং আমরা এর জন্য অনুতপ্ত। কোচিং স্টাফদের কোনো দোষ নেই।

আমার অধিনায়কত্বে এটাই প্রথম।  আমরা এটাকে অনেক গুরত্বপূর্ণ ম্যাচ হিসেবে নিয়েছিলাম। এই সিরিজে বল রিভার্স সুইং করছিল কিন্তু এই বল টা রিভার্স সুইং করছিল না টাই আমারা এটা করেছি। আসলে এটা খুবই অসম্মানজনক খারাপ কাজ হয়েছে। আমি গভীরভাবে অনুতপ্ত এবং আমি প্রতিজ্ঞা করছি এমন আর কখনও হবে না।’

ব্যানক্রফট  এর বল টেম্পারিং করার ভিডিও টি দেখুন….

Lehman, Smith and Bancroft in trouble. #balltampering #savsaus

Posted by Peter Lacey on Saturday, March 24, 2018

টেস্টে বল টেম্পারিংয়ের অভিযোগ নতুন কিছু নয়। এটি অনেক পুরনো প্রথম দিনেই অভিযোগে ছিল ফাস্ট বোলা প্যাট কামিন্সের দিকে। দক্ষিণ আফ্রিকানদের দাবি, পা দিয়ে বল মাড়িয়ে আকৃতি বদলাতে চেষ্টা করেছিলেন এই বোলার। তৃতীয় দিনেও একই বিতর্ক, এবার সেই অপরাধ করলেন ব্যানক্রফট। মাঠের দুই আম্পায়ার তাঁর সঙ্গে কথাও বলেছেন। কোনো খেলয়ার বলের  পরিবর্তন করলে সেই বল পরিবর্তন করা হয়। কিন্তু আম্পায়াররা বল বদলাননি বা অস্ট্রেলিয়াকে ৫ রান জরিমানাও করেননি।

আরো পড়ুনঃ

২০১৯ আইসিসি ক্রিকেট বিশ্বকাপের ১২তম আসরের ১০ দল

Leave a Reply